About Me

header ads

শাওমির অনন্য উদ্ভাবন Xiaomi Mi Mix Alpha


স্মার্টফোন জগতে শাওমি উন্মোচন করলো অবিশ্বাস্য একটি ফোন। 108 মেগা পিক্সেল ক্যামেরা সম্বলিত "শাওমি এমআই মিক্স আলফা" (Xiaomi Mi Mix Alpha)। ফোনটির ডিসপ্লেতে রয়েছে দারুণ বিশেষত্ব। ডিসপ্লেটি সামনের দিক থেকে দুপাশে ভাজ হয়ে পেছনের দিকে চলে গিয়েছে। বলতে গেলে ফোনটির ক্যামেরার অংশটুকু বাদে সম্পূর্ণ ফোনটিই একটি ডিসপ্লে। ফোনটিতে থাকছে তিনটি ক্যামেরা। তার মধ্যে মেইন লেন্সটি 108 mp (মেগা পিক্সেল)। 


এই ফোনটির ডিসপ্লেটি ফ্লেক্সিবল ধরনের এজন্যই ফোনটি ফোল্ড করা গিয়েছে। ফোনটির ভেতরের গঠনটি টাইটেনিয়াম অ্যালুমিনিয়াম দিয়ে তৈরি এজন্য ফোনটির ওজন বেশ হালকা ও গুণগত মান ভালো এবং ফোনটির ক্যামেরার জায়গাটি তৈরি করা হয়েছে সিরামিক দিয়ে। ফোনটির ডিসপ্লে 7.9 ইঞ্চি (20.07 cm) যার রেজুলেশন 2088x2250 px এবং পিপিআই (PPI-Pixel Per Inch) ডেনসিটি 389 ppi.


ডিসপ্লেটির সামনের অংশ আমরা সচরাচর যেসব ফোন গুলো ব্যাবহার করি সেগুলোর মতই ব্যবহার করা যাবে। ডিসপ্লেটির দুপাশের অংশে বিভিন্ন নোটিফিকেশন শো করা সহ সাউন্ড কম বেশির অপশন থাকবে এবং ডিসপ্লের পেছনের দিকে শাওমির বিভিন্ন অ্যাপ সম্পর্কিত বিষয় গুলো সহ আরো বিভিন্ন ফিচার থাকবে। এছাড়া সেলফি তোলার ক্ষেত্রে ডিসপ্লে পেছনের অংশটিই ব্যবহার করা যাবে। তাহলে বোঝায় যাচ্ছে স্মার্টফোনটির ডিসপ্লে আসলেই অসাধারণ সুযোগ সুবিধা প্রদান করতে সক্ষম।


ফোনটিতে প্রসেসর হিসেবে ব্যাবহার করা হয়েছে Qualcomm Snapdragon 855 Plus, র‍্যাম ব্যবহার করা হয়েছে 12 GB এবং রম ব্যবহার করা হয়েছে 512 GB. এগুলো দেখে বোঝায় যাচ্ছে ফোনটির পারফর্মেন্স আসলেই অসাধারণ। ফোনটিতে আলাদা কোনো মেমোরি কার্ড স্লট থাকছে না। আসলে এতো রম থাকলে আলাদা কোনো মেমোরি কার্ডের দরকার আছে বলে মনে হয় না। 


প্রথমেই বলেছি ফোনটির তিনটি ক্যামেরার মধ্যে মেইন লেন্সটি 108 মেগা পিক্সেলের। এছাড়াও আলট্রা ওয়াইডে ছবি তোলার জন্য থাকছে 20 mp ও সাথে 12 mp এর একটি টেলিফটো লেন্স। ফোনটিতে অসাধারণ ছবি তোলার পাশাপাশি পাবেন বেশ ভালো মানের ভিডিও এক্সপেরিয়েন্স। ভিডিও করা যাবে 2160 p তে 30 fps ও 60 fps এ, এবং 1080 p তে 30 fps, 120 fps ও 240 fps এ। ফোনটিতে 3.5 mm অডিও জ্যাক থাকছে না। ফোনটির ব্যাটারি হিসেবে থাকছে 4050 mAh এর ফাস্ট চার্জিং সাপোর্টেড ব্যাটারি এবং চার্জিং পোর্ট হিসেবে দেয়া হয়েছে USB Type-C port.

ফোনটির দাম বাংলাদেশি টাকায় দুই লাখ টাকার উপরে যা ফোনটির বিল্ড কোয়ালিটি ও স্পেসিফিকেশন্স থেকেই বোঝা যাচ্ছে। 2019 সালের ডিসেম্বর মাসেই ফোনটি রিলিজ করা হবে। 

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্যসমূহ